শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ১০:১৪ পূর্বাহ্ন৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

৯ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

চলন্ত অবস্থায় গলাকেটে গাড়ি ছিনতাইর প্ল্যান ছিল

চলন্ত অবস্থায় গলাকেটে গাড়ি ছিনতাইর প্ল্যান ছিল

ডেস্ক নিউজ: অবশেষে ধরা পড়ল দক্ষিণ সুরমা থেকে মালিকের গলা কেটে নাটকীয় কায়দায় গাড়ি ছিনতাই চেষ্টাকারী ২ জন। গ্রেফতার দুইজন হলেন লক্ষ্মীপুর জেলার সদর উপজেলার এলাকার হাসানুজ্জামানের পুত্র মো. রনি (২২) ও সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার পুরানগাঁও মখলেছ মিয়ার পুত্র সিরাজুল ইসলাম রনি (২১)।

সিরাজুল ইসলাম রনিকে ঘটনার রাতেই চন্ডিপুল এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় এবং পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে লক্ষ্মীপুরের বাসিন্দা মো. রনিকে ঢাকা দারুসসালাম থানাধীন আমিনবাজার ব্রিজ সংলগ্ন একটি গাড়ির গ্যারেজ থেকে গ্রেফতার করে দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশ।

এর আগে গত ১৬ নভেম্বর সিরাজুল ইসলাম রনি ও মো. রনি মিলে গাড়ি ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে দক্ষিণ সুরমা উপজেলার বড় বেটুয়ারপার এলাকার বাসিন্দা রোহেল আহমদ নামের এক ব্যক্তিকে চলন্ত অবস্থায় গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করলে রোহেল আহমদের ধস্তাধস্তিতে হত্যা করতে ব্যর্থ হলেও গুরুতর জখম করে তারা দুইজন পালিয়ে যায়। পরে আশপাশের লোকজন রোহেল আহমদকে প্রথমে নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজে ও পরে ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় প্রথমে সিরাজুলিসলাম রনিকে ও পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সহায়তায় আমিনবাজার এলাকা থেকে রোববার (১৭ নভেম্বর) দিবাগত রাত আনুমানিক সাড়ে ১২ টার দিকে মো. রনিকে গ্রেপ্তার করে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের দক্ষিণ সুরমা থানা।

পুলিশ জানায়, রোহেল আহমদ তার কালো রঙের একটি এলিয়ন কার বিক্রি করার জন্য পূর্ব পরিচিত হিসেবে সিরাজুল ইসলাম রনির কাছে বলেন। তখন রনি ক্রেতা দেখবে বলে জানান। এ ঘটনার কয়েকদিন পর সিরাজুল ইসলাম রনি একজন ক্রেতাকে গাড়ি দেখানোর কথা বলে রোববার (১৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় রোহেলকে গাড়ি নিয়ে দক্ষিণ সুরমার চন্ডিপুল এলাকায় আসার কথা বলেন। তার কথামতো রোহেল গাড়ি নিয়ে আসেন। তখন সিরাজুল ইসলাম রনি রোহেলকে পাশের সিলেটে বসান এবং নিজে গাড়ি চালিয়ে দেখার কথা বলে স্টিয়ারিংয়ে উঠেন। এসময় কথিত ক্রেতা ঢাকা থেকে আগত মো. রনি পিছনের সিটেই বসা ছিলেন। এমতাবস্থায় গাড়ি যখন বদিকোনার দিকে যাচ্ছে তখন একটি নির্জন স্থানে পিছনে বসা রনি সামনে সিটে বসে থাকা গাড়ির মালিক রোহেলের গলায় চাকু চালান। তখন রোহেল ধস্তাধস্তি শুরু করলে গলা না কাটলেও গুরুতর জখম হন। এসময় গলা কাটতে ব্যর্থ হয়ে প্রথমে মো. রনি ও পরে গাড়ি রেখে সিরাজুল ইসলাম রনি পালিয়ে যান।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল ফজল বলেন, ‘তাদের উদ্দেশ্য ছিলো রোহেল মিয়ার গলা কেটে গাড়ি ছিনতাই করা। কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়ে রোহেল মিয়াকে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। তখন স্থানীয় জনতা রোহেল মিয়াকে হাসপাতালে পাঠান। ঘটনার রাতেই সিরাজুল ইসলাম রনিকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে যে চাকু চালিয়েছিলো তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

মো. রনির বাড়ি লক্ষ্মীপুর হলেও সে দীর্ঘদিন যাবৎ সিলেটে থেকে ঢাকা-সিলেট রোডের একটি গাড়িতে কনট্রাকটর হিসেবে কাজ করত বলেও জানান ওসি। এ ঘটনায় তাৎক্ষণিক একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল ফজল।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
© Daily Jago কর্তৃক সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT