শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ১১:১৩ পূর্বাহ্ন৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

৯ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

ওসমানীনগর আ.লীগের কমিটিতে নতুন মুখের হিড়িক

ওসমানীনগর আ.লীগের কমিটিতে নতুন মুখের হিড়িক

ডেস্ক নিউজ: অবশেষে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে দীর্ঘ পাঁচ বছর পর ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির ঘোষণা করা হয়েছে। গত বুধবার জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় আতাউর রহমানকে সভাপতি এবং আফজালুর রহমান চৌধুরী নাজলুকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন পায়। নতুন কমিটিতে পুরাতনদের পাশাপাশি স্থান পেয়েছেন অনেক নবীন। নতুন কমিটিতে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের পদ পেয়েছে উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি জাবেদ আম্বিয়া ও , যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অরুনোদয় পাল ঝলক এবং সাংগঠনিক সম্পাদকের পদ পেয়েছেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আনা মিয়া। এছাড়াও সহযোগী সংগঠনের অনেক নেতাকর্মী কমিটিতে স্থান পেয়েছেন।

জানা যায়, সম্প্রতি কেন্দ্রীয় নির্দেশে দেশের প্রতিটি উপজেলায় কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি গঠনের উদ্যোগ নিয়ে তা বাস্তবায়ন করে আসছেন নীতি নির্ধারকরা। কিন্তু ২০১৫ সালে ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হলেও শুধু সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। এর পর দীর্ঘ প্রায় পাঁচ বছর কেটে যায় পূর্ণাঙ্গ কমিটি ছাড়া। দলীয় সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেদ সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী এবং যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামানের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা প্রকাশ্যে দ্বিখন্ডিত হয়ে রাজনীতি করছেন। ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে দুই বলয়ের নেতাকর্মীরা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করেন। নির্বাচনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে শফিক চৌধুরী বলয়ের আতাউর রহমান ও আফজালুর রহমান চৌধুরী নাজলু জয়ী হন। কিন্তু কোন্দলের কারণে দীর্ঘ দিন পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় পদ পদবী থেকে বঞ্চিত থাকেন দলের নেতাকর্মীরা। দলীয় আভ্যন্তরিন কোন্দলের কারণে স্থানীয় সরকার নির্বাচন গুলোতে দলীয় প্রার্থীদের ভরাডুবি হয়। ফলে সর্বশেষ দুটি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের নীতি নির্ধারকরা সিলেট-২ আসনের দলীয় কোন প্রার্থী না দিয়ে শরীক দল জাপাকে আসনটি ছেড়ে দেয়। এতে নির্বাচনী এলাকার সর্বস্ত্ররের মানুষ কাংখিত উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত হয়। বর্তমান সরকার দেশে ব্যাপক উন্নয়ন ঘটালেও ওসমানীনগর তথা সিলেট-আসনে রুটিন ওয়ার্কের মতো কাজ গুলো ছাড়া বড় ধরণের কোন উন্নয়ন হয়নি। নতুন কমিটি দুই গ্রুপের নেতাকর্মীদের সমন্বয় করে গঠন করা হয়েছে বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

কমিটিতে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি কবির উদ্দিন আহমদ, জেলা আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক জগলু চৌধুরী, পীর মজনু মিয়া, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী ও সৈয়দ এপতার হোসেন পিয়ারসহ ৩৬জনকে কমিটিতে সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে।

কমিটির অন্যান্যরা হচ্ছেন, সহ সভাপতি আবদাল মিয়া, আবদুল হামিদ, মকবুল আলী, পিনাক পানি ভট্টাচার্য্য, শেরওয়ান আহমদ, নেফা মিয়া, গোলাম কিবরিয়া, হারুন মিয়া, আলাউর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তফজ্জুল হোসেন, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সাজ্জাদুর রহমান, কৃষি ও সবমায় সম্পাদক মঞ্জুর আহমদ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সহিদুর রহমান সহিদ, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ চুনু মিয়া, দপ্তর সম্পাদক নাজমুল ইসলাম মুন্না, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক কয়েছ আহমদ, প্রচার ও প্রচারণা সম্পাদক চয়ন পাল, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক আক্তার আহমদ মিনছার, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইকবাল আহমদ মস্তান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শামীমা হক লস্কও, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক আবদুস শহিদ, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মুকিদ মিয়া, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহেদ সুমন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আজিজুর রহমান চৌধুরী, সাংস্কৃতিক সম্পাদক ডিকে জয়ন্ত, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ শাকির আহমদ শাহীন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফেরদৌস খান, লুৎফুর রহমান, সহ দপ্তর সম্পাদক ফজলুর রহমান, সহ প্রচার ও প্রকাশনা সেবুল আহমদ, কোষাধ্যক্ষ শাহ নুরুর রহমান সানুর।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান চৌধুরী নাজলু বলেন, বুধবার জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন পেয়েছে। নতুন কমিটিতে সহযোগী সংগঠনের অনেকে গুরুত্বপূর্ণ পদ পেয়েছেন। সকল ভেদাভেদ ভুলে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা এখন ঐক্যবদ্ধ।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
© Daily Jago কর্তৃক সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT